ধুনটের রাজনীতি

ধুনটের রাজনীতি-
আবারও দেখি মেরুকরণ,
গলাবাজিতে চাম্পিয়ন কেউ
লেহন করে যুগোল চরণ !!

কে কখন ডিগবাজী খায়
বুঝিনা তার ভানুমতি,
কে হিরো, কে জিরো
সকাল বিকাল তেলেসমাতি !!

কর্মীরা সব বলের মতন
নেতা গুলো ফকফকা,
উধুর পিন্ডি বুধুর ঘাড়ে
চাপিয়ে কেউ চকচকা !!

কিল খেয়ে যায় মদনা ব্যাটা
ঝোল খেয়ে যায় কালু,
রাজনীতির এই নোংড়া খেলায়
বংশী বাজায় হুলু !!

কাঁদা ছড়ায় যখন তখন
যে যেমন পারে,
কাক খায়না কাকের মাংস
এরা সবই করে !!

এটা কোন রাজনীতি নয়
স্বার্থের দোসর এরা,
ধুনটে আর রাজনীতি নেই
দালাল দিয়ে ভরা !!

আমি কবি ছন্দ লিখি
তাতেও না’কী দোষ,
আমার দিকেও আঙ্গুল তোলে
দু’টাকার পা’পোষ !!

তাই তো দিচ্ছি কাঁথা পুড়ে
শালার পঁচা রাজনীতি,
তোদের মত পারিনা আমি-
সকাল বিকাল দুর্ণীতি !!

দুই মেরুতে পৃথক কেন
ধুনটের আজ রাজনীতি ;
নৌকা ভরা কাক গুলোই
আনবে ডেকে দুর্গতি !!

রাজনীতির এই নোংড়া খেলা
জমছে তবে বেশ,
কপালে হাত দিয়ে ভাবি
কবে হবে এর হবে শেষ?

ভালবাসি বঙ্গবন্ধুকে
তাইতো ফিরে আসি;
দুই মেরুতে দুই তারকা
কষ্টে বুক যায় ভাসি !!

পৃথক হতে চাইনি মা’গো
চাইছি সবার একতা ;
তুমি যদি জননী হও
মুজিব জাতীর পিতা !!

রচয়িতা-

-শেখ সোহেল রানা

মথুরাপুর, ধুনট, বগুড়া।